আজ: ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং, শুক্রবার, ৩০ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৭ রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী, রাত ১২:৫৯
সর্বশেষ সংবাদ
জাতীয়, প্রধান সংবাদ বাংলাদেশ চাইলে আগামী নির্বাচনে সব ধরনের সহযোগিতা দেবে ভারত: শ্রিংলা

বাংলাদেশ চাইলে আগামী নির্বাচনে সব ধরনের সহযোগিতা দেবে ভারত: শ্রিংলা


পোস্ট করেছেন: নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ০৫/২৩/২০১৭ , ১:৪৬ অপরাহ্ণ | বিভাগ: জাতীয়,প্রধান সংবাদ


Spread the love
Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদক,ঢাকা: বাংলাদেশের কাছ থেকে অনুরোধ পেলে আগামী নির্বাচনে যেকোনো ধরনের সহযোগিতার জন্য ভারত তৈরি আছে বলে জানিয়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা। তিনি বলেন, তবে কি ধরনের সহযোগিতা লাগবে, সেটা বাংলাদেশকে বলতে হবে।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে কূটনৈতিক সাংবাদিকদের সংগঠন ডিপ্লোমেটিক করেসপন্ডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (ডি-ক্যাব) আয়েজিত ‘ডিক্যাব টক’-এ অংশ নিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

সীমান্ত হত্যা প্রসঙ্গে শ্রিংলা বলেন, ‘সীমান্তে একটি মৃত্যুও কাম্য নয়। তবে অন্য যে কোনো সময়ের তুলনায় সীমান্ত হত্যা কমেছে। চলতি বছরে এটি ২০ এর নিচে চলে এসেছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘বিএসএফ জোয়ানরা জীবন রক্ষার্থে অনেক সময় গুলি ছুড়তে বাধ্য হয়। এটিকে শূন্যের কোটায় নামিয়ে আনতে ভারত সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে নির্দেশনা রয়েছে। সীমান্ত হত্যার বিষয়টি সত্যিই দুঃখজনক।’

তিস্তা চুক্তি কবে নাগাদ হতে পারে এমন প্রশ্নের জবাবে শ্রিংলা বলেন, ‘তিস্তা চুক্তির বিষয়ে দুই প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে যে কথা হয়েছে এর বাইরে আমার কিছু বলার নেই। তবে এইটুকু বলব চুক্তিটি দ্রুততম সময়ে হবে।’

অর্থনৈতিক সহযোগিতার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশকে ২০১০ সাল থেকে এ পর্যন্ত সব মিলিয়ে ৮০০ কোটি ডলার ঋণ দিয়েছে এবং দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে ভারত। এসব ঋণের শর্ত খুবই সহজ।

ট্রানজিটের উল্লেখ করে শ্রিংলা বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে তিনটি রেলসংযোগ হবে। এগুলো হলো, আখাউড়া-আগরতলা, ফেনী-বিলোনিয়া এবং পঞ্চগড়-শিলিগুড়ি। নৌপ্রটোকল রুটের ড্রেজিং কাজে ভারত ৭৫ শতাংশ অর্থ দেবে আর বাংলাদেশ দেবে ২৫ শতাংশ। যাত্রীবাহী জাহাজ চলাচল করবে।

বাংলাদেশীদের জন্যে ভারত ভিসা সহজ করেছে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, গত এক বছরে ১৫ লাখ ভিসা দেয়া হয়েছে। ভিসার প্রক্রিয়া অনেক সহজ হয়েছে।

এক প্রশ্নের জবাবে ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যে চ্যালেঞ্জ থাকবেই। পুরনো চ্যালেঞ্জের পাশাপাশি অপ্রত্যাশিতভাবে অনেক চ্যালেঞ্জ এসে যায়।

চার জাতির বিবিআইএন উপ-আঞ্চলিক সহযোগিতা সম্পর্কে তিনি বলেন, আপাতত বাংলাদেশ, ভারত ও নেপাল মোটরযান চুক্তি করবে। ভবিষ্যতে অভ্যন্তরীণ অনুমোদনের পর ভুটান তাতে যোগ দেবে।

ডিপ্লোমেটিক করেসপন্ডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশের সভাপতি রেজাউল করিম লোটাসের সঞ্চলনায় শুরুতে স্বাগত বক্তব্য দেন সাধারণ সম্পাদক পান্থ রহমান।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন- জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি শফিকুর রহমান, ডিপ্লোমেটিক করেসপন্ডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশের সদস্যসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকরা।

Share

Comments

comments

Close