আজ: ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯ ইং, বৃহস্পতিবার, ১১ মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১৯ জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী, বিকাল ৪:১৭
সর্বশেষ সংবাদ
জাতীয়, প্রধান সংবাদ স্ক্যানিং মেশিন বসানো হবে সকল স্থলবন্দরে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্ক্যানিং মেশিন বসানো হবে সকল স্থলবন্দরে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী


পোস্ট করেছেন: নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ১০/০৯/২০১৭ , ৩:০৬ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: জাতীয়,প্রধান সংবাদ


Spread the love
Spread the love

ভোরের খবর ডেস্ক- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, চোরাচালান দমন এবং সকল প্রকার অবৈধ পণ্য অনুপ্রবেশ রোধে সরকার দেশের ১৬টি স্থলবন্দরেই স্ক্যানিং মেশিন চালু করবে।
রোববার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ৫৯তম জাতীয় চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘স্থল বন্দরে স্ক্যানিং মেশিন স্থাপন চোরাচালান রোধে সহায়ক হবে।’
চোরাচালান রোধে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী সংস্থাসমূহকে তাদের কার্যক্রমের গতি বাড়ানোর আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘চোরাচালান প্রতিহত করার জন্য সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোকে সমন্বয়ের মাধ্যমে কাজ করতে হবে। অভিযান আরো জোরদার করতে হবে এবং এটা নিয়মিতভাবেই চালিয়ে যেতে হবে।’ তিনি জানান, ২০১৭ সালের জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত আইন-শৃংখলা বাহিনী পাঁচ হাজার ৪৪৩ জনকে আটক করেছে, যা ২০১৬ সালের একই সময়ের ছিল পাঁচ হাজার ৩৯ জন। উল্লেখিত সময়ে আইন-শৃংখলা বাহিনী এক লাখ ৯৯ হাজার ২৫১টি অভিযান পরিচালনা করেছে এবং ২ হাজার ৭ কোটি ৪১ লাখ টাকার নিষিদ্ধ ঘোষিত পণ্য জব্দ করেছে।
আসাদুজ্জামান বলেন, বিভিন্ন সংস্থা এ সময় ছয় হাজার ৯২২ জন অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে ছয় হাজার ৪৮৮টি মামলা দায়ের করে।
পুলিশের মহাপরিদর্শক এ কে এম শহীদুল হক, বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও আইন-শৃংখলা সংস্থার প্রতিনিধিগণ ব্রিফিং-এর সময় উপস্থিত ছিলেন।
মন্ত্রী বলেন, এ ছাড়াও বিজিবি, পুলিশ, র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব), কোস্টগার্ড ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর (ডিএনসি) এবং অন্যান্য সংস্থা তাদের চোরাচালান বিরোধী অভিযানে অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার ও অন্যান্য নিষিদ্ধ দ্রব্যা জব্দ করেছে।
তিনি আরো বলেন, আইন-শৃংখলা সংস্থাগুলো চলতি বছর জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত তাদের অভিযানকালে ৫০৫টি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করেছে। গত বছর একই সময়ে ৩৪৪টি অস্ত্র জব্দ করা হয়েছিল।
আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘ইয়াবা ট্যাবলেটের অনুপ্রবেশ বন্ধে আমরা সীমান্ত এলাকায় সার্বক্ষণিক গোয়েন্দা নজরদারি নিশ্চিতে কিছু প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করেছি।’
অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, সরকার চলতি বছর নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে জরুরি সেবা প্রদানের উদ্দেশ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে ‘৯৯৯’ চালু করবে। অ্যাম্বুলেন্স, পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও অন্যান্য জরুরি সেবা চেয়ে যে কোনো নাগরিক এই নাম্বারে ফোন করতে পারবেন।

Share

Comments

comments

Close