আজ: ২২ এপ্রিল, ২০১৮ ইং, রবিবার, ৯ বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৭ শাবান, ১৪৩৯ হিজরী, সকাল ১১:০৬
সর্বশেষ সংবাদ
অর্থ ও শিল্প দেশের শেয়ারবাজারে টানা দরপতন

দেশের শেয়ারবাজারে টানা দরপতন


পোস্ট করেছেন: নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ১০/২৮/২০১৭ , ২:৪৭ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: অর্থ ও শিল্প


দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্য সূচক কমেছে দশমকি ৩৫ শতাংশ। সেই সঙ্গে কমেছে অপর দুটি মূল্য সূচকও। আর লেনদেন কমেছে প্রায় এক শতাংশ।

গত সপ্তাহে (২২ থেকে ২৬ অক্টোবর) দেশের শেয়ারবাজারে মূল্য সূচকের পতন হয়েছে। সেই সঙ্গে কমেছে লেনদেনের পরিমাণ।

ডিএসইতে এ নিয়ে পরপর তিন সপ্তাহ সবকটি মূল্য সূচকের পতন হলো। শেষ সপ্তাহজুড়ে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স কমেছে ২১ দশমকি ৩০ পয়েন্ট বা দশমকি ৩৫ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি কমে ২৪ দশমকি ৮৫ পয়েন্ট বা দশমকি ৪১ শতাংশ এবং তার আগের সপ্তাহে কমে ১৩৭ দশমিক ৯০ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ২২ শতাংশ। অর্থাৎ টানা তিন সপ্তাহের পতনে ডিএসইর প্রধান সূচক কমেছে ১৮২ পয়েন্ট।

অপর দুটি সূচকের মধ্যে শেষ সপ্তাহে ডিএসই-৩০ সূচক কমেছে ১৪ দশমিক ৪০ পয়েন্ট বা দশমিক ৬৬ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি কমে ৯ দশমিক ১৭ পয়েন্ট বা দশমিক ৪২ শতাংশ। আর ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক শেষ সপ্তাহে কমেছে ১২ দশমিক ৯৫ পয়েন্ট বা দশমিক ৯৭ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি কমে চার দশমিক ২৫ পয়েন্ট বা দশমিক ৩২ শতাংশ।

৩৩৬টি কোম্পানির সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া শেয়ার ও ইউনিটের মধ্যে ১১৩টিরই দাম আগের সপ্তাহের তুলনায় বেড়েছে। অপরদিকে দাম কমেছে ২০৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৬টির দাম।

অন্যদিকে, শেষ সপ্তাহে মূল্য সূচকের সঙ্গে কমেছে মোট ও দৈনিক গড় লেনদেনের পরিমাণ। সপ্তাহের প্রতি কার্যদিবসে গড়ে লেনদেন হয়েছে ৫৬৯ কোটি ৭৬ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে লেনদেন হয় ৫৭৩ কোটি ৬০ লাখ টাকা। অর্থাৎ প্রতি কার্যদিবসে গড় লেনদেন কমেছে ৩ কোটি ৮৪ লাখ টাকা বা দশমিক ৬৭ শতাংশ।

ডিএসইতে শেষ সপ্তাহের পাঁচ কার্যদিবসে মোট লেনদেন হয়েছে দুই হাজার ৮৪৮ কোটি ৮৩ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহজুড়ে লেনদেন হয় দুই হাজার ৮৬৮ কোটি তিন লাখ টাকা। সে হিসাবে মোট লেনদেন কমেছে ১৯ কোটি ২০ লাখ টাকা।

গত সপ্তাহে মোট লেনদেনের ৮৬ দশমিক ৫২ শতাংশই ছিল ‘এ’ ক্যাটাগরিভুক্ত কোম্পানির শেয়ারের দখলে। এছাড়া বাকি চার দশমিক ৫১ শতাংশ ‘বি’ ক্যাটাগরিভুক্ত, ৭ দশমিক শূন্য ২ শতাংশ ‘এন’ ক্যাটাগরিভুক্ত এবং ১ দশমিক ৯৪ শতাংশ ‘জেড’ ক্যাটাগরিভুক্ত কোম্পানির শেয়ারের।

এদিকে গত সপ্তাহে মূল্য সূচক ও লেনদেন কমলেও ডিএসইর বাজার মূলধনের পরিমাণও কিছুটা বেড়েছ। সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস শেষে ডিএসইর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে চার লাখ ১০ হাজার ৯৪ কোটি টাকা। যা তার আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল চার লাখ ৭ হাজার ৫৯৩ কোটি টাকা। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর বাজার মূলধন বেড়েছে দুই হাজার ৫০১ কোটি টাকা।

ডিএসইতে সপ্তাহজুড়ে টাকার অঙ্কে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে লংকাবাংলা ফাইন্যান্সের শেয়ার। কোম্পানিটির ১৩০ কোটি ৭৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা সপ্তাহজুড়ে হওয়া মোট লেনদেনের চার দশমিক ৫৯ শতাংশ।

অন্যদিকে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্র্যাক ব্যাংকের শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১২৫ কোটি ৬১ লাখ টাকা, যা সপ্তাহের মোট লেনদেনের চার দশমিক ৪১ শতাংশ। ১০০ কোটি ৮৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বিবিএস কেবলস।

এছাড়া লেনদেনে এরপর রয়েছে- ইফাদ অটোস, গ্রামীণফোন, আমরা নেটওয়ার্ক, আইডিএলসি ফাইন্যান্স, রংপুর ফাউন্ড্রি, এক্সিম ব্যাংক এবং উত্তরা ব্যাংক।

Comments

comments

Close