আজ: ১২ ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং, মঙ্গলবার, ২৮ অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৪ রবিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী, রাত ৪:৩১
সর্বশেষ সংবাদ
প্রধান সংবাদ, মিডিয়া ওয়াচ সাংবাদিক উৎপলকে পাওয়ার খবর মুছে দিয়েছে পূর্বপশ্চিম

সাংবাদিক উৎপলকে পাওয়ার খবর মুছে দিয়েছে পূর্বপশ্চিম


পোস্ট করেছেন: News Desk | প্রকাশিত হয়েছে: ১১/০৫/২০১৭ , ৮:০৩ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: প্রধান সংবাদ,মিডিয়া ওয়াচ


দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর অবশেষে সাংবাদিক উৎপল দাসকে পাওয়ার খবর দিয়েছিল অনলাইন নিউজ পোর্টাল পূর্বপশ্চিম বিডি ডট নিউজ। মতিঝিল থানা পুলিশের বরাত দিয়ে তারা বলেছিল, তিনি টাঙ্গাইলের মির্জাপুর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। কিন্তু কিছুক্ষণ পরই প্রকাশিত খবরটি মুছে দিয়েছে উৎপলের কর্মস্থল পূর্বপশ্চিম বিডি। এদিকে আজ সন্ধ্যার পর বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) যুগ্ম-মহাসচিব পুলক ঘটক তার ফেসবুক প্রোফাইলে দেয়া এক স্ট্যাটাসে বলেন, সাংবাদিক উৎপল দাস উদ্ধারের বিষয়ে পুলিশের কাছ থেকে ২ ধরণের তথ্য পাচ্ছি। টাঙাইলের মির্জপুর থানার সাব ইনস্পেক্টর রিপন আমাকে নিশ্চিত করেছেন যে উৎপলকে উদ্ধার করা গেছে। কিন্তু ওই থানার ইনস্পেকটর তদন্ত আমাকে জানিয়েছেন, উদ্ধারের খবর সত্য নয়। তাকে উদ্ধার করা যায়নি। যে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কথা বলা হচ্ছে সেখানে আমারা খোঁজ নিয়েছি। সেখানেও উৎপল নেই। সঠিক তথ্য জানার জন্য যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছি।
গত ১০ অক্টোবর থেকে দীর্ঘ ২৬ দিন ধরে সাংবাদিক উৎপল দাস নিখোঁজ। তার বাড়ি নরসিংদী জেলার রায়পুরা থানার রাধানগর গ্রামে। এই ঘটনায় তার বাবা চিত্তরঞ্জন দাস তখন মতিঝিল থানায় জিডি করেছেন। সন্তানের নিখোঁজ হওয়ার খবর শুনে তার পুরো পরিবার ভেঙে পড়েছে বলে জানিয়েছেন চিত্তরঞ্জন দাস।
জিডিতে উল্লেখ করা হয়েছে, গত ১০ অক্টোবর মতিঝিলে তার কর্মস্থল পূর্ব পশ্চিম বিডি ডটকম অনলাইন নিউজ পোর্টালের অফিস থেকে বের হওয়ার পর নিখোঁজ হন ওই সংবাদমাধ্যমের সিনিয়র রিপোর্টার উৎপল দাস। ১০ অক্টোবর থেকে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। এই ঘটনায় গত রবিবার পূর্ব পশ্চিম বিডি ডটকম কর্তৃপক্ষও একটি জিডি করেছে থানায়।
উৎপলের সহকর্মীরা জানান, ১০ অক্টোবর দুপুর ১টার দিকে কাজ শেষে অফিস থেকে বের হন উৎপল দাস। এর পর থেকেই তিনি নিখোঁজ। তার ব্যবহৃত দুটি মোবাইল ফোন নম্বরই বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। পরিবার, সহকর্মী ও বন্ধুবান্ধবের কাছে খোঁজাখুঁজি করেও তাঁর কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। এই ঘটনায় তাঁর স্বজন ও সহকর্মীরা উদ্বিগ্ন।
ওই সময় উৎপলের বাবা জিডিতে লিখেছিলেন, ছেলেকে খুঁজে না পেয়ে আমরা পুরো পরিবার শঙ্কার মধ্যে রয়েছি। আমাদের কারো সঙ্গে কোনো বিরোধ নেই। তাই কেউ আমার ছেলেকে তুলে নিয়ে গেছে এমন সন্দেহ করতে পারছি না। ১৩ দিনেও উত্পলের কোনো খবর না পেয়ে তার প্রাণ সংশয়ের আশঙ্কাও করছি।

Comments

comments

Close