আজ: ২০ এপ্রিল, ২০১৮ ইং, শুক্রবার, ৭ বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৫ শাবান, ১৪৩৯ হিজরী, বিকাল ৩:০১
সর্বশেষ সংবাদ
জীবন ধারা যৌনশক্তি বাড়াতে প্রাকৃতিক খাদ্য

যৌনশক্তি বাড়াতে প্রাকৃতিক খাদ্য


পোস্ট করেছেন: নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ১১/১৭/২০১৭ , ১১:৫০ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: জীবন ধারা


যৌনশক্তি বাড়াতে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াসম্পন্ন ঔষধি কৌশল এবং মনোবৈজ্ঞানিক চিকিৎসা এখন প্রায় সেকেলে হয়ে পড়েছে। আজকাল যৌন শক্তি বাড়াতে এবং যৌনতায় সঙ্গীকে সুখী রাখতে প্রাকৃতিক কামোদ্দীপক বা যৌনশক্তি বর্ধক খাদ্যই অনেক বেশি কার্যকরী হিসেবে বিবেচিত হয়। ইংরেজিতে এই খাদ্যগুলোকে গ্রিক সৌন্দর্যে্যর দেবী আফ্রোদিতীর নামে নামকরন করে আফ্রোডিসিয়াক বলা হয়। এই খাদ্যগুলো আমাদের কামেন্দ্রিয়গুলোকে জাগিয়ে তোলে এবং যৌন গ্রন্থিগুলোকে উদ্দীপিত করে। সর্বোপরি নারী-পুরুষ উভয়েরই যৌন পারফরমেন্স তুঙ্গে ওঠাতে সহায়ক এই খাদ্যগুলো।

পাঠকদের জন্য এখানে বিশ্বের এমন কিছু খাদ্যের তালিকা তুলে ধরা হল। এই খাদ্যগুলো আপনার যৌনজীবনকে আরও আনন্দময় করে তুলতে প্রাকৃতিক কামোদ্দীপক উপাদান হিসেবে কাজ করবে।

চকোলেট : স্মরণাতীতকাল থেকেই চকোলেট রোমান্স ও গভীর প্রণয়ের প্রতীক হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। বলা হয়ে থাকে, চকোলেট খাওয়ার পর নারীদের দেহে যে পরিমাণ কামোদ্দীপনা সৃষ্টি হয় তা পুরুষ সঙ্গীর গভীর প্রণয়যুক্ত শৃঙ্গারের ফলে সৃষ্ট কামোত্তেজনারও চারগুন।

এছাড়া গলিত চকোলেট ব্যবহার করে অভিনব সব কলাকৌশলের মাধ্যমেও আপনি আপনার নারী সঙ্গীর মধ্যে আরও বেশি কামোদ্দীপনা সৃষ্টি করতে পারবেন।

কমলা : খুবই সুস্বাদু ও সিডাকটিভ একটি ফল। আপনার সঙ্গীকে গভীর প্রণয়াসক্তিতে সিক্ত করতে চাইলে চকোলেটের বিকল্প হিসেবে এই ফলটিকে কাজে লাগাতে পারেন।

অ্যাসপ্যারাগাস বা শতমূলীর জুস : ১৯ শতকে ফ্রান্সে নববিবাহিত দম্পতিকে বাসর ঘরে পাঠানোর আগে রাতের খাবারের সঙ্গে তিন দফায় অ্যাসপ্যারাগাস বা শতমূলী গাছের অঙ্কুর থেকে বানানো জুস খাওয়ানো হতো। অ্যাসপ্যারাগাস বা শতমূলী নারী পুরুষ উভয়ের মধ্যেই ব্যাপক যৌন উদ্দীপনা সৃষ্টিতে সক্ষম।

অ্যাসপ্যারাগাসে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ পটাশিয়াম, আঁশ, ভিটামিন এ ও সি, থায়ামাইন ও ফলিক এসিড। ফলিক এসিড শরীরে হিস্টামিন উৎপাদন বাড়ায় বহুগুণে। আর চুড়ান্ত যৌনসুখ উপলব্দি পেতে হলে হিস্টামিন নারী পুরুষ উভয়ের জন্যই জরুরি।

ডিম : ডিমে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন বি-৫ ও বি-৬। এ দুটি ভিটামিন মানসিক চাপ কমাতে খুবই কার্যকরী। এছাড়া সুস্বাস্থ্য বজায় রাখা ও ফিটনেস ধরে রাখতেও ডিমের অসংখ্য উপকারী গুণ রয়েছে। আর শরীর সুস্থ্য থাকলে এমনিতেই যৌন উদ্দীপনা বাড়ে।

তরমুজ : আপনি যদি আপনার যৌনজীবনকে আরও উদ্দীপনাময় করে তুলতে চান তাহলে এখন থেকেই প্রতিদিন একাধিকবার তরমুজ খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। তরমুজকে প্রাকৃতিক ভায়াগ্রা নামে ডাকা হয়।

তরমুজে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ অ্যামাইনো এসিড। একে বলা হয় সিট্রুলিন। সিট্রুলিন মানবদেহের রক্তের চলাচলের শিরা-উপশিরাগুলোকে প্রসারিত করতে সহায়ক ভুমিকা পালন করে। এতে জননাঙ্গে রক্তের প্রবাহ বাড়ার ফলে যৌন সক্ষমতাও বৃদ্ধি পায়।

সেফরন বা জাফরান : কামোদ্দীপনায় আপনি যদি তাৎক্ষণিক ফল পেতে চান তাহলে আজই আপনার নিয়মিত খাদ্য তালিকায় পর্যাপ্ত পরিমাণ সেফরন বা জাফরান যুক্ত করুন। সাম্প্রতিক বেশ কয়েকটি গবেষণায় দেখা গেছে জাফরান যৌন উদ্দীপনা বাড়াতে বেশ কার্যকরী।

ক্রকাস সেটিভাস নামক ফুলের শুকনো গর্ভমুন্ড থেকে জাফরান উৎপাদন করা হয়। সামান্য একটু সেফরন বা জাফরান তৈরিতে বিপুল সংখ্যক ফুল দরকার হয়। ভারতীয়, ইতালীয় ও স্পেনীয়রা স্মরণাতীতকাল থেকেই রন্ধনকার্যে জাফরানের ব্যবহার করে আসছে।

রসুন : সাধারণত নিজেদের যৌন স্বাস্থ্য বা সক্ষমতার মাত্রা নিয়ে আমরা খুব একটা ভাবিত হইনা, যতক্ষণনা আমরা তেমন কোনও মারাত্মক সমস্যার মুখোমুখি হই। কিন্তু যৌন স্বাস্থ্য সম্পর্কে অবহেলামূলক এই দৃষ্টিভঙ্গি আজই ত্যাগ করুন।

এখনই নিয়মিত রসুন খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। স্মরণাতীতকাল থেকেই নারী পুরুষ উভয়েরই যৌন উদ্দীপনা বাড়াতে এবং জননাঙ্গকে পূর্ণ সক্রিয় রাখতে রসুনের পুষ্টিগুনের কার্যকারীতা সর্বজনস্বীকৃত। রসুনে রয়েছে এলিসিন নামের উপাদান যা যৌন ইন্দ্রিয়গুলোতে রক্তের প্রবাহ বাড়িয়ে দেয়।

Comments

comments

Close