আজ: [english_date], [bangla_day], [bangla_date], [hijri_date], [bangla_time]
সর্বশেষ সংবাদ
বিনোদন বেঙ্গল উচ্চাঙ্গসংগীত উৎসবের সূচি

বেঙ্গল উচ্চাঙ্গসংগীত উৎসবের সূচি


পোস্ট করেছেন: নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: 12/18/2017 , 9:27 am | বিভাগ: বিনোদন



উপমহাদেশের শাস্ত্রীয় সংগীতের সাধকদের নিয়ে ২৬ ডিসেম্বর থেকে ঢাকার ধানমন্ডিতে শুরু হবে পাঁচ দিনের বেঙ্গল উচ্চাঙ্গসংগীত উৎসব। বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের ওয়েবসাইটে গিয়ে বিনামূল্যে নিবন্ধন করা যাবে। নিবন্ধনের জন্য জাতীয় পরিচয়পত্র অথবা পাসপোর্ট নম্বর, মোবাইল নম্বর ও ইমেইল আইডি লাগবে।

১৮ ডিসেম্বর রাত ১২টা থেকে শুরু নিবন্ধন প্রক্রিয়া শুরু হইয়েছে । তা কত দিন চলবে সে বিষয়ে বিজ্ঞপ্তিতে কিছু বলা না হলেও বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের প্রেস বিভাগ জানিয়েছে, এ বছর উৎসবটি ধানমন্ডির আবাহনী মাঠে হওয়ায় বরাবরের মতো দর্শক সংকুলান হবে না। তাই নির্ধারিত সংখ্যার বাইরে গিয়ে নিবন্ধনের সুযোগ থাকছে না। উৎসবে অংশ নিতে হলে নিবন্ধন প্রক্রিয়া আগেভাগে শুরু করার পরামর্শ দিয়েছেন তারা।

এখন জেনে নিন কবে কার পরিবেশনা থাকছে-

২৬ ডিসেম্বর উৎসবের প্রথম দিনেই গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনীত বেহালা শিল্পী ড. এল সুব্রহ্মণ্যনের পরিবেশনা থাকছে। তার সঙ্গে থাকবে কাজাখাস্তানের ৫৮ শিল্পীর দল আসতানা সিম্ফনি ফিলহারমোনিক অর্কেস্ট্রার পরিবেশনা। এই আসরে রাজরূপা চৌধুরীর সরোদ-বাদনের পাশাপাশি খেয়াল পরিবেশন করবেন বিদূষী পদ্মা তালওয়ালকর। থাকবেন সেতার বাদক ফিরোজ খান ও পূর্বায়ন চ্যাটার্জি, খেয়ালিয়া সুপ্রিয়া দাস ও বংশীবাদক রাকেশ চৌরাসিয়া।

২৭ ডিসেম্বর উৎসব শুরু হবে অদিতি মঙ্গলদাস ড্যান্স কোম্পানির কত্থক পরিবেশনায়। বেঙ্গল পরম্পরা সংগীতালয়ের শিক্ষার্থীদের তবলা বাদনের পর সন্তুর পণ্ডিত শিবকুমার শর্মা, খেয়ালিয়া পণ্ডিত উল্লাস কশলকর, সেতার-ওস্তাদ শাহিদ পারভেজ খানের পরিবেশনা থাকছে দ্বিতীয় দিনের আসরে।

ধ্রুপদ পরিবেশন করবেন অভিজিত কুণ্ডু, বেঙ্গল পরম্পরা সংগীতালয়ের বাঁশি, পণ্ডিত রনু মজুমদার সরোদ ও পণ্ডিত দেবজ্যোতি বোসের পরিবেশনাও থাকছে এদিন।

২৮ ডিসেম্বর তৃতীয় দিনের পরিবেশনা শুরু হবে বেঙ্গল পরম্পরা সংগীতালয়ের শিক্ষার্থীদের সেতার-বাদনের মধ্য দিয়ে। এরপর ঘাটম ও কঞ্জিরা বাজিয়ে শোনাবেন বিদ্বান ভিক্ষু বিনায়ক রাম ও সেলভাগণেশ বিনায়ক রাম। ঢাকার সরকারি সংগীত কলেজের খেয়াল পরিবেশনার পাশাপাশি সরোদ পরিবেশন করবেন আবির হোসেন, বাঁশিতে থাকবেন গাজী আবদুল হাকিম।

তৃতীয় দিনে ধ্রুপদ পরিবেশন করবেন পণ্ডিত উদয় ভাওয়ালকর, বেহালা-বাদনে বিদূষী কালা রামনাথ। এদিন খেয়াল পরিবেশন করবেন পণ্ডিত অজয় চক্রবর্তী।

২৯ ডিসেম্বর উৎসবের চতুর্থ দিনে শুরুতেই থাকবে বাংলাদেশের একদল নৃত্যশিল্পীর পরিবেশনা। এদিন মনিপুরি, ভরতনাট্যম এবং কত্থক নৃত্য পরিবেশন করবেন সুইটি দাস, অমিত চৌধুরী, স্নাতা শাহরিন, সুদেষ্ণা স্বয়ংপ্রভা, মেহরাজ হক ও জুয়াইরিয়াহ মৌলি। সরোদ বাদনে থাকবেন বেঙ্গল পরম্পরা সংগীতালয়ের শিক্ষার্থীরা।

খেয়াল পরিবেশন করবেন ওস্তাদ রাশিদ খান, সরোদ-পণ্ডিত তেজেন্দ্রনারায়ণ মজুমদার, বেহালা পরিবেশন করবেন মাইশুর মঞ্জুনাথ, খেয়াল পরিবেশন করবেন মেওয়াতি ঘরানার পদ্মবিভূষণ পণ্ডিত যশরাজ। চেলো ও সেতার বাজিয়ে শোনাবেন সাসকিয়া রাও দ্য-হাস ও বুদ্ধাদিত্য মুখার্জি।

৩০ ডিসেম্বর উৎসবের শেষ দিনের পরিবেশনা শুরু হবে বিদূষী সুজাতা মহাপাত্রের ওড়িশি নৃত্য পরিবেশনায়। এদিন মোহন বীণা শোনাবেন পণ্ডিত বিশ্বমোহন ভট্ট, খেয়াল পরিবেশন করবেন ব্রজেশ্বর মুখার্জি, সেতার-বাজিয়ে শোনাবেন পণ্ডিত কুশল দাস , কল্যাণজিত দাস ও পণ্ডিত কৈবল্যকুমার। উৎসব শেষ হবে পণ্ডিত হরিপ্রসাদ চৌরাসিয়ার বাঁশির সুরে।

Comments

comments

Close