আজ: ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯ ইং, বৃহস্পতিবার, ১১ মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১৯ জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী, দুপুর ১:৩৭
সর্বশেষ সংবাদ
জাতীয়, প্রধান সংবাদ রংপুরে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটগ্রহণ চলছে

রংপুরে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটগ্রহণ চলছে


পোস্ট করেছেন: নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ১২/২১/২০১৭ , ১১:৫৮ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: জাতীয়,প্রধান সংবাদ


Spread the love
Spread the love

রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটগ্রহণ চলছে। সকালে ভোটার উপস্থিতি খুব একটা না থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে দলে দলে ভোটার এসে নির্ধারিত কেন্দ্রে ভোট দিচ্ছেন। বেলা সাড়ে ১১টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।
রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়। বিকাল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোটগ্রহণ চলবে।
ভোটগ্রহণ উপলক্ষে বিজিবি, র‌্যাব ও পুলিশের ব্যাপক টহল চলছে। নিরাপত্তা ব্যবস্থাও জোরদার আছে।
আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও সদ্য সাবেক মেয়র সরফুদ্দীন আহম্মেদ স্থানীয় সালমা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে সকাল ৯টায় ভোট দেন। তিনি বলেন, ‘মেয়র থাকার সময় আমি অনেক কাজ করেছি। আশা করি এবারও আমার পক্ষে রায় আসবে।’ রংপুরে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটগ্রহণ চলছে
বিএনপির প্রার্থী কাওসার জামান সকাল ৯টার দিকে দেওয়ানটুলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দেন। তিনি বলেন, ‘রংপুরে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট হচ্ছে। এটাই আমাদের বড় পাওয়া।’
জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোস্তাফিজার রহমান সকাল সাড়ে ৯টার দিকে নিজ বাড়ি কলেজ রোড এলাকার কামারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দেন। এ সময় তিনি বলেন, ‘মানুষ শান্তিতে বাস করতে চায়। এখনো শান্ত পরিবেশ আছে।’
জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ সেনপাড়া সিটি করপোরেশন প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দেন সকাল সোয়া নয়টার দিকে। এরশাদ বলেন, ‘রংপুর জাতীয় পার্টির ঘাঁটি। এখানকার মানুষ আমাকে নির্বাচিত করে নতুন জীবন দিয়েছেন।’
প্রধান ৩ দলের অংশগ্রহণে মেয়র পদে ৭ জন এবং কাউন্সিলর পদে ২৭৬ জন প্রার্থী নিয়ে এ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ভোটের আভাস মিলছে।
রংপুর সিটিতে এবার ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৯৩ হাজার ৯৯৪। গতবারের চেয়ে ভোটার বেড়েছে ২৪ হাজার। ভোটগ্রহণের কেন্দ্র ১৯৩টি। এর মধ্যে ১২৮ কেন্দ্রকে গুরুত্বপূর্ণ বা ঝুঁকিপূর্ণ বলে চিহ্নিত করেছে নির্বাচন কমিশন। রংপুর সিটিতে এবার দলীয় প্রতীকে প্রথমবার ভোট হচ্ছে। রংপুরে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটগ্রহণ চলছে
রিটার্নিং কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্র সরকার জানান, ১৯৩টির মধ্যে ১২৮টি কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। নির্বাচনে ৩৬ প্লাটুন বিজিবি, ৫ হাজার পুলিশ, দুই হাজার ৭শ আনসার সদস্য, সিটির ৩৩টি ওয়ার্ডে ৩৩টি মোবাইল টিম এবং ৩৩টি র্যাবের টিম রয়েছে। এ ছাড়া ১৬টি স্ট্রাইকিং ফোর্স মোতায়েন রয়েছে। পুরো এলাকায় বসানো হয়েছে ৮টি চেকপোস্ট।
প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা গতকাল বলেছেন, সার্বিক পরিস্থিতি তাদের নিয়ন্ত্রণে। সুন্দর, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য ভোট হবে বলেই তিনি আশা করছেন।
ভোটের দিন নির্বাচনী এলাকায় সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার। বিকালে ভোট শেষে কেন্দ্রে কেন্দ্রে চলবে গণনা। আর গণনা শেষে পুলিশ কমিউনিটি হলে স্থাপিত নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে ঘোষণা করা হবে ভোটের ফলাফল।
২০১২ সালের ২০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয়েছিল রংপুর সিটি কর্পোরেশনের প্রথম নির্বাচন। ওই সময় দলীয় প্রতীকে ভোট না হলেও সরফুদ্দীন আহম্মেদ ঝন্টু মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে ১ লাখ ৬ হাজার ২৫৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছিলেন।
Share

Comments

comments

Close