আজ: ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, মঙ্গলবার, ৮ ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ৪ জমাদিউস-সানি, ১৪৩৯ হিজরী, রাত ৩:৪৮
সর্বশেষ সংবাদ
অপরাধ ছয় নারী ধর্ষণ: ছাত্রলীগের সেই বহিষ্কৃত নেতা গ্রেপ্তার

ছয় নারী ধর্ষণ: ছাত্রলীগের সেই বহিষ্কৃত নেতা গ্রেপ্তার


পোস্ট করেছেন: নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ১২/২৬/২০১৭ , ৯:০৬ অপরাহ্ণ | বিভাগ: অপরাধ


ছয় নারী ধর্ষণ: ছাত্রলীগের সেই বহিষ্কৃত নেতা গ্রেপ্তার

শরীয়তপুরে ছয় নারীকে ফাঁদে ফেলে ধর্ষণ ও সেসব দৃশ্য গোপনে ভিডিও করার অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতা আরিফ হোসেন হাওলাদারকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলার সইক্কা ব্রিজ এলাকা থেকে গোসাইরহাট সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) থান্দার খায়রুল হাসান আরিফকে গ্রেপ্তার করেন।

আরিফ ভেদরগঞ্জ উপজেলার নারায়ণপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের বহিষ্কার হওয়া সাধারণ সম্পাদক।

এএসপি থান্দার খায়রুল হাসান বলেন, আরিফ চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ থেকে ট্রলারে করে গোসাইরহাট আসছিলেন। তিনি তার বাবা ও মামার সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করেছিলেন। ওই ফোনের কল ট্র্যাকিং করে তার অবস্থান নিশ্চিত করা হয়। পদ্মা ও মেঘনা নদী পার হয়ে জয়ন্তিয়া নদীতে ট্রলার নিয়ে প্রবেশ করলে পুলিশ ঘেরাও দিয়ে আরিফকে গ্রেপ্তার করে। তাকে ভেদরগঞ্জ থানায় নেয়া হচ্ছে। পরে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে।

আরিফ ভেদরগঞ্জের নারায়ণপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তার বাড়ি ফেরাঙ্গিকান্দি গ্রামে। তিনি স্থানীয় একটি কলেজের স্নাতক শ্রেণির ছাত্র। ফাঁদে ফেলে ছয় নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। গত ১৫ অক্টোবর ছয় নারীকে ধর্ষণের দৃশ্যর ভিডিও ও ছবি মানুষের হাতে ছড়িয়ে পড়ে। ১৭ অক্টোবর থেকে স্থানীয় বিভিন্ন মানুষ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে তা ছড়িয়ে দেন।

অভিযোগ পেয়ে ১৯ অক্টোবর ভেদরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ আরিফকে বহিষ্কার করে। বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় ১১ নভেম্বর জেলা ছাত্রলীগ আরিফকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করে। গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হলে ভুক্তভোগী এক নারী আরিফের বিরুদ্ধে ভেদরগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, গত ১০ নভেম্বর সন্ধ্যায় সাইফুল ইসলাম নামের এক যুবকের আইডি থেকে প্রথমে ছয় নারীর সঙ্গে আরিফের আপত্তিকর ছবি ছড়ানো হয়। এরপর ওই দিন রাত ৮ট ৪০ মিনিটে এবং রাত ৮টা ৪২ মিনিটে রাজিব মাদবরের আইডি থেকে আরও দুইটি ভিডিও আপলোড করা হয়।

মামলার বাদী ধর্ষণের শিকার এক নারী বলেন, ‘অবশেষে লম্পট আরিফ হোসেন হাওলাদারকে পুলিশ গ্রেপ্তার করায় আমরা ভুক্তভোগীরা স্বস্তি পেয়েছি। আমরা তার উপযুক্ত শাস্তি চাই।’

Comments

comments

Close