আজ: ১৭ জুলাই, ২০১৮ ইং, মঙ্গলবার, ২ শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৫ জিলক্বদ, ১৪৩৯ হিজরী, রাত ৯:৩৭
সর্বশেষ সংবাদ
প্রধান সংবাদ, রাজনীতি বিএনপিকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখ‌তে চায় সরকার : ফখরুল

বিএনপিকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখ‌তে চায় সরকার : ফখরুল


পোস্ট করেছেন: নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ০১/২৪/২০১৮ , ৪:৩৭ অপরাহ্ণ | বিভাগ: প্রধান সংবাদ,রাজনীতি



ঢাকা: বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, খালেদা জিয়া আদালতে হাজিরা দিতে গেলে আমাদের দলের তরুণরা যখন তাকে আদালতে নিয়ে যায়, নিয়ে আসে তখন প্রতিদিন ৫০-৬০ জন নেতা-কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়। উদ্দেশ্য একটাই বিএনপিকে নির্বাচন থেকে দূরে সরিয়ে রাখা। আমরা আবারও বলছি এই অবস্থা চলবে না, চলতে দেওয়া হবে না।

আজ বুধবার দুপুরে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও দলটির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর ৩য় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে তার কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর পর সাংবাদিকদের কাছে তিনি এসব কথা বলেন।

‌ফখরুল ব‌লেন, ‘সরকার চেষ্টা করছে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন যেন না হয়। সত্যিকার অর্থে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন হলে সরকার কখনোই নির্বাচিত হতে পারবে না। সরকার গণতন্ত্রের সমস্ত প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করে দিয়েছে। মানুষের অধিকার কেড়ে নিয়েছে, জনগণের ভোট দেওয়ার ন্যূনতম অধিকার কেড়ে নিয়েছে। কথা বলা, লেখার ও সংগঠন করার সুযোগ নাই। রাস্তায় বের হওয়ার সুযোগ নাই।’

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রসঙ্গ টেনে  তি‌নি বলেন, ‘আজকে এরা বিভিন্ন চেষ্টা করছে এই নির্বাচন যেন না হয়। তারা জানে, সত্যিকার অর্থে যদি নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন হয়, তাহলে এই সরকার কখনই আবার নির্বাচিত হয়ে আসতে পারবে না। সেজন্য, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের যে বিধান ছিল, আওয়ামী লীগের দাবিতে সে তত্ত্বাবধায়ক ব্যবস্থা আমরা নিয়ে এসেছিলাম, তা বাতিল করে দেওয়া হয়েছে। আজকে তারা দলীয় সরকারের অধীনে জোর করে নির্বাচন করতে চাইছে। জোর করেই করছে এবং বিভিন্ন অজুহাত সৃষ্টি করছে। আমরা সুস্পষ্ট করে বলেছি যে নির্বাচনকালীন সময়ে, নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন চাই। যা ছিল (তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা) এ দেশের মানুষ তা গ্রহণ করেছিল। তিনটি নির্বাচন এখানে হয়েছে। আজকে কি কারণে সেই বিধান সংবিধান বাতিল করে, আপনারা (সরকার) নিরপেক্ষ সরকার না দিয়ে, দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন করবেন?

ফখরুল বলেন, এটা প্রমাণিত হয়েছে এই সরকারের অধীনে অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না। আমরা পরিষ্কার করে বলেছি, স্পষ্ট করেই বলেছি, নির্বাচনকালীন সময়ে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড চাই, সমান সুযোগ চাই।’

তিনি আ‌রো বলেন, ‘আমরা দৃঢ়তার সঙ্গে বলতে চাই, নির্বাচনকালীন সময়ে নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া এ দেশের জনগণ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে না। যতই নির্যাতন করুন, গ্রেফতার করুন, হত্যা- গুম করুন, এ দেশের মানুষকে, জনগণের যে চাওয়া, নিরপেক্ষ সরকারের দাবি থেকে সরাতে পারবেন না।

ঢাবিতে সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদের উপর ছাত্রলীগের হামলার বিষয়ে বিএনপি নেতা বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে যা ঘটেছে তা আওয়ামী লীগের চরিত্র, এটা ছাত্রলীগের নতুন ব্যাপার নয়। তারা বহুবার শিক্ষকদের মেরেছেন, ছাত্রদের মেরেছেন এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিক্টেটরিয়াল যে অথারিটি তারা যখনি তাদের (ছাত্রলীগ) বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে, তখনি তারা (ছাত্রলীগ) হাতিয়ার নিয়ে গণতন্ত্রকামী মানুষের উপর আক্রমণ করেছে।

দেশে সমাজে রাষ্ট্রে তারা জোর করে ক্ষমতা দখলে রাখতে চায়। কিন্তু তারা তা পারবে না। এর অবসান হবেই। এ দেশের মানুষ নি:সন্দেহে তাদের পরাজিত করবে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

এ সময় ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়ে ও কোকোর রুহের মাগফেরাত কামনায় দোয়া করেন বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য আব্দুল মঈন খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালি, আবদুস সালাম ও শামা ওবায়েদ প্রমুখ।

Comments

comments

Close