আজ: ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং, রবিবার, ২ পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৯ রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী, রাত ১২:৪৪
সর্বশেষ সংবাদ
জাতীয়, প্রধান সংবাদ, রংপুর বিভাগ রংপুরে জঙ্গি মামলা পরিচালনাকারী আইনজীবী ‘নিখোঁজ’

রংপুরে জঙ্গি মামলা পরিচালনাকারী আইনজীবী ‘নিখোঁজ’


পোস্ট করেছেন: নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ০৩/৩১/২০১৮ , ৯:২৭ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: জাতীয়,প্রধান সংবাদ,রংপুর বিভাগ


Spread the love
Spread the love

অনলাইন ডেস্ক: 
রংপুরে আলোচিত জাপানি নাগরিক হোশি কুনিও হত্যা এবং মাজার খাদেম রহমত আলী হত্যা মামলায় জেএমবির জঙ্গিদের বিরুদ্ধে সরকার পক্ষে মামলা পরিচালনাকারী প্রধান আইনজীবী রথিশ চন্দ্র ভৌমিক বাবু সোনা শুক্রবার সকাল থেকে নিখোঁজ রয়েছেন। গভীর রাত পর্যন্ত স্বজনরা তার সন্ধান না পেয়ে থানায় জিডি করেছেন।

অ্যাডভোকেট বাবু সোনার স্ত্রী দীপা ভৌমিক জানান, শুক্রবার সকাল ৬টার দিকে তার স্বামী জানান, তিনি কাজে বাইরে যাচ্ছেন, কিছুক্ষণের মধ্যে বাসায় ফিরবেন। এরপর পায়জামা-পাজ্ঞাবি পরা এক ব্যক্তির লাল মোটর সাইকেলে করে তিনি বাসা থেকে বের হয়ে যান। এরপর থেকে তার আর কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। মোবাইল ফোনটি বন্ধ থাকায় তার সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। এদিকে আইনজিবী বাবু সোনার ছোট ভাই সাংবাদিক সুশান্ত ভৌমিক জানান, তিনি জরুরি কাজে শুক্রবার ঢাকায় গিয়েছিলেন। সেখানে থাকা অবস্থায় খবর পান তার ভাই বাসা থেকে সকালে বের হয়ে গেলেও আর ফিরে আসেননি। পরে তিনি রাতেই ঢাকা থেকে বিষয়টি ফোনে রংপুরের পুলিশ সুপার মিজানুর রহমানকে জানান।

আইনজীবী রথীশ চন্দ্র ভৌমিক নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় রংপুরে তোলপাড় শুরু হয়েছে। গভীর রাত পর্যন্ত তার স্বজনরা এবং আইনজীবী সহকর্মীরাসহ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা নগরীর বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করেন। তবে শনিবার সকাল পর্যন্ত তার কোনো সন্ধান মেলেনি।

রথীশ চন্দ্র ভৌমিক বাবু সোনা জঙ্গিদের হাতে নিহত জাপানি নাগরিক হোশি কুনিও ও মাজারের খাদেম রহমত আলী হত্যা মামলায় সরকার পক্ষে মামলা পরিচালনাকারী প্রধান আইনজীবী ছিলেন। তার নেতৃত্বে ওই দুই মামলায় সাত জঙ্গির ফাঁসি হয়।

এ ছাড়াও তিনি রংপুর আইনজীবী সমিতির নির্বাচিত কোষাধ্যক্ষ ছিলেন। জেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক ছাড়াও হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের রংপুর বিভাগের ট্রাস্ট্রি তিনি। পূজা উদযাপন পরিষদ সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সঙ্গেও জড়িত আছেন। তার নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর পুলিশ-র‌্যাব পিবিআইসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা তাকে উদ্ধারের জন্য মাঠে নেমেছে বলে জানিয়েছেন কোতয়ালী থানার ওসি বাবুল মিয়া।

পুলিশের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, জঙ্গিদের মামলা পরিচালনার বিষয়টিসহ বিভিন্ন বিষয় মাথায় নিয়ে আমরা কাজ করছি। প্রবীণ এই আইনজীবীর মোবাইল ফোনটি ট্রাকিং করে দেখা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

Share

Comments

comments

Close