আজ: ১৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং, বুধবার, ৫ পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১৩ রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী, রাত ১০:১৩
সর্বশেষ সংবাদ
অপরাধ, জেলা সংবাদ শাহজাদপুরে চা দোকানী হত্যার রহস্য উদঘাটন

শাহজাদপুরে চা দোকানী হত্যার রহস্য উদঘাটন


পোস্ট করেছেন: নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ০৪/১৩/২০১৮ , ৬:২৮ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: অপরাধ,জেলা সংবাদ


Spread the love
Spread the love

ফারুক হাসান কাহার, শাহজাদপুর ( সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি : সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর গালা ইউনিয়নের ভেড়াখোলা গ্রামে এবছর ১৯ মার্চে ডোবা থেকে জামাত আলী নামের এক চা দোকানীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ । সেই চা দোকানীর হত্যার রহস্য উদঘাটন হয়েছে ।

হত্যাকান্ডে জড়িত এক আসামীকে গ্রেফতার করেছেন মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই নওজেস আলী। ১২ এপ্রিল  মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শাহজাদপুর থানার উপপরিদর্শক এস আই নওজেশ আলী মামলায় একজনকে গ্রেফতার করে শাহজাদপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে হাজির করে।গ্রেফতার কৃত আসামী উপজেলার ভেড়াখোলা খোকা মোল্লার পুত্র আবুল কাশেম পাশু (৫৫)

ওইদিন  সকাল সাড়ে ১১টার দিকে গ্রেফতারকৃত আসামীর ১৬৪ ধারামতে স্বীকারক্তিমুলক জবানবন্দি রেকর্ড করেন শাহজাদপুর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ হাসিবুল হক।প্রায় এক ঘন্টা আসামীর স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি রেকর্ড করা হয় ।এ জবানবন্দিতে ঐ চা দোকানিকে হত্যার কথা স্বীকার করে আসামী । মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই নওজেস আলী জানান, হত্যাকান্ডের  দিন শ্রীলংকায় নিদাহাস ট্রফিতে বাংলাদেশ ভারত ক্রিকেট ম্যাচ চলছিলো।ভিকটিম কে হত্যা করে ডোবার গর্তে ভিতর লাশ পুতে কচুরী পানা দিয়ে ঢেকে রাখে। হত্যাকান্ডে আরো কারা কারা জড়িত আছে তদন্তের স্বার্থে এই মুহুর্তে তাদের নাম বলা যাবে না। ভিকটিম চা দোকানীর চাচার সাথে ঘাতকের মাঝে ডিসলাইনের ব্যবসা নিয়ে কোন্দল ছিলো। তিনি আরও জানান যে,হত্যা কান্ডের পর থেকেই আসামীর আচরন অস্বাভাবিক মনে হয়। তাকে আমরা নজরদারীতে রাখি।হত্যাকান্ডের পরদিন থেকে এই আসামী নামাজ পড়া শুরু করে,এমনকি দিনের বেশিরভাগ সময় একাকী সময় কাটাতো।খাওয়া দাওয়া ছিল অনিয়মিত।তার এই অস্বাভাবিক আচরন দেখে পুলিশ তার উপড় নজরদারী বাড়ায়।গ্রেফতার হওয়ার আগে বিষ পান করে আত্নহত্যার চেষ্টাও করেছিলো ।

উল্লেখ্য এবছর ১৯ মার্চ সোমবার বেলা ১২টার দিকে উপজেলার গালা ইউনিয়নের বেড়াখোলা গ্রামের একটি ডোবা জামাত আলী নামে এক চা দোকানীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। জামাত আলী ওই গ্রামের বিশা মোল্লার ছেলে। তিনি স্থানীয় ভেড়াখোলা বাজারের চা দোকানদার।হত্যাকান্ডের পর ভিকটিমের চাচা বাদী হয়ে অজ্ঞাত নামা আসামীদের নামে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

Share

Comments

comments

Close