আজ: ২৪ মে, ২০১৯ ইং, শুক্রবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৯ রমযান, ১৪৪০ হিজরী, রাত ৩:১৫
সর্বশেষ সংবাদ
বিনোদন গুরুতর অসুস্থ মিঠুন চক্রবর্তী

গুরুতর অসুস্থ মিঠুন চক্রবর্তী


পোস্ট করেছেন: নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ০৫/১৫/২০১৮ , ১২:৩০ অপরাহ্ণ | বিভাগ: বিনোদন


Spread the love

বাংলাদেশি বংশদ্ভূত জনপ্রিয় ভারতীয় অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী গুরুতর অসুস্থ। চিকিৎসা চলছে দিল্লীর একটি হাসপাতালে।

ভারতের বেশ কয়েকটি ইংরেজি গণমাধ্যম জানিয়েছে, তিনি দীর্ঘদিন ধরে পিঠের যন্ত্রণায় ভুগছেন মিঠুন। দিল্লিতে তার চিকিৎসা চলছে। এজন্য বেশ কিছুদিন অভিনয় ও অন্যান্য কাজ থেকে তিনি দূরে আছেন।

বড় পর্দা থেকে ছুটি নিলেও, ছোটপর্দায় মাঝেমধ্যেই দেখা যেত মিঠুনকে। মূলত, ড্যান্স রিয়েলিটি শো ড্যান্স ইন্ডিয়া ড্যান্স-এর বিচারক ছিলেন তিনি। কিন্তু শারীরিক কারণে ওই শো থেকেও সরে দাঁড়ান এই অভিনেতা। এমনকি রাজনীতির ময়দান থেকেও নিজেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন একসময়ের এই ‘ডিস্কো ড্যান্সার’ খ্যাত অভিনেতা।

পিঠের যন্ত্রণার জন্যে এক সময় উন্নত চিকিৎসা করান মিঠুন। কিন্তু তেমন কোনও লাভ হয়নি। তবে জানা গেছে, এবারের দিল্লিতে চিকিৎসায় ইতিবাচক সাড়া পাচ্ছেন তিনি। শিগগিরই হয়তো আপন ঠিকানায় দেখা যাবে এই অভিনেতাকে।

২০০৯ সালে ‘‌লাক’‌ ছবিতে চপার থেকে লাফিয়ে পড়ে স্টান্ট করতে গিয়ে সময়ের ভুল গণনায় পড়ে গিয়ে পিঠে চোট পান মিঠুন। তারপর থেকেই সেই যন্ত্রণা তাকে ভোগাচ্ছে। সেই দৃশ্যে মোটরসাইকেল থেকে মিঠুনের লাফ দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সময়ের একটু এদিক-ওদিক হওয়ায় তিনি লাফ দিতে গিয়ে পড়ে যান।

পরে শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসে চিকিৎসা করতে যান এই অভিনেতা। সেখান থেকে ফিরে সুস্থ হয়ে আবার কাজে যোগ দেন মিঠুন চক্রবর্তী। গত বছর ভারতের টিভি চ্যানেল সনিতে ‘দ্য ড্রামা কোম্পানি’ নামে একটি কমেডি অনুষ্ঠান শুরু করেন। তখন বলিউডে জোর গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল যে চিত্র প্রযোজক এবং পরিচালক রাম গোপাল ভর্মার ছবির মাধ্যমে বড় পর্দায় ফিরবেন ‘ডিস্কো ড্যান্সার’ ছবির এই অভিনেতা। আরও শোনা গিয়েছিল, রাম গোপাল ভর্মার এই ভৌতিক ছবিতে সম্ভবত তিনি প্রধান চরিত্রে থাকবেন। ছেলে মিমোকে নিয়ে রাম গোপালের জন্মদিনের অনুষ্ঠানে যান তিনি। কিন্তু এখন পর্যন্ত তাঁর বড় পর্দায় ফেরার কোনো আভাস পাওয়া যাচ্ছে না।

মিঠুনের আসল নাম গৌরাঙ্গ চক্রবর্তী। চলচ্চিত্রে এসে তিনি মিঠুন চক্রবর্তী নামে পরিচিতি পান। তাকে কলেজে সবাই ডাকতেন মিষ্টিদা বলে। কিন্তু মিষ্টি হাসির এই ছেলেকে বলিউডের অনেক পরিচালকের দরজা থেকে ফেরত আসতে হয়েছে তার কৃষ্ণবর্ণের কারণে। দারোয়ানের ঘাড়ধাক্কা খাওয়ার মতো অভিজ্ঞতা পর্যন্ত আছে তার। অথচ গত শতকের আশির দশকে সবচেয়ে বেশি ছবিতে অভিনয় করার রেকর্ড এই মিঠুন চক্রবর্তীর দখলে। বাঙালি পরিচালক মৃণাল সেনের চলচ্চিত্র ‘মৃগয়া’তে প্রথম অভিনয় করে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান মিঠুন। এরপর বলিউডের নির্মাতারাও তাকে নিয়ে ভাবতে শুরু করেন। এখন তিনি সবার প্রিয় দাদা। তবে এই পর্যায়ে আসতে মিঠুনকে অনেক চড়াই-উতরাই আর অবজ্ঞার শিকার হতে হয়েছে।

তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জয়ী এই অভিনেতা ‘ডিস্কো ড্যান্সার’, ‘হাম সে হ্যাঁয় জমানা’, ‘গুলামি’, ‘বাদল’, ‘আম্মা’, ‘গুরু’, ‘গোলমাল থ্রি’, ‘অগ্নিপথ’, ‘বাঙালি বাবু’, ‘রাস্তা’, ‘নোবেল চোর’, ‘লে হালুয়া’সহ অসংখ্য চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। ৬৫ বছর বয়সী এই অভিনেতাকে সর্বশেষ দেখা গেছে বলিউডের ‘হাওয়াইজাদা’ ছবিতে। এই ছবিতে আরও ছিলেন আয়ুষ্মান খুরানা ও পল্লবী শ্রদ্ধা।

Share

Comments

comments

Close