আজ: ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং, রবিবার, ২ পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৯ রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী, রাত ১২:১৯
সর্বশেষ সংবাদ
ফেসবুক থেকে উপ তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক শিফাইন ও উপ-স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক হিমেল : বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার বিমুখ দুই ভাই

উপ তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক শিফাইন ও উপ-স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক হিমেল : বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার বিমুখ দুই ভাই


পোস্ট করেছেন: নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ০৬/০৭/২০১৮ , ৩:১৩ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: ফেসবুক থেকে


Spread the love
Spread the love

৫ মাসের বড় মামাতো ভাই  প্রকৌশলী শাফিয়ীল ইসলাম শিফাইন ও ফুফাতো ভাই  ডাঃ শাহরিয়ার ফেরদৌস হিমেল ।

২০০৩ সালে একই সাথে একই শ্রেণীতে দিনাজপুর জিলা স্কুলে ভর্তি হন তাঁরা । পরবর্তীতে   ২০০৮ সালে মাধ্যমিক  এবং ২০১০ সালে উচ্চমাধ্যমিকে  কৃতিত্বের সাথে উত্তীর্ণ হন।

নিজেদের  মেধার সাক্ষর রেখে ভর্তি পরীক্ষায় শিফাইন রুয়েটে এবং ছোট ভাই হিমেল শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজে ভর্তির সুযোগ পান ।

রাজনৈতিক পরিবারে বেড়ে ওঠা এই দুই ভাইয়ের মধ্যে প্রকৌশলী শাফিয়ীল ইসলাম শিফাইন রুয়েট ছাত্রলীগের যুগ্ন সাধারণ  সম্পাদক পদে এবং পরবর্তীতে কিছুদিন  রুয়েট ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ  সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির ( সোহাগ-জাকির) উপ তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করেন এবং একই কমিটিতে ছোট ভাই ডাঃ শাহরিয়ার ফেরদৌস হিমেল উপ-স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করেন।

এর পূর্বে ডাঃ হিমেল শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগের পর পর তিনটি পৃথক কমিটিতে যথাক্রমে সহ-সম্পাদক,পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক ও সহসভাপতি পদে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেন।

ডাঃ শাহরিয়ার ফেরদৌস হিমেল এর বাবা এডভোকেট আঃ সালাম আমান , দিনাজপুর-৬ আসনে ১৯৭৯ এবং ১৯৯১ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হয়ে নৌকা প্রতীকে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহন করেন। সুদীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনের প্রথম ভাগে তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের এস.এম হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মনোনীত হন  এবং  ১৯৭৬ সালে বঙ্গবন্ধুর  মৃত্যুর পর তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের আহব্বায়ক নির্বাচিত হন। পরবর্তীতে তিনি দিনাজপুর জেলা যুবলীগের সভাপতি এবং কেন্দ্রীয় যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য হিসেবে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেন । তিনি দিনাজপুর জেলা আওয়ামী  লীগের সহ-সভাপতি ছিলেন। বর্তমানে তিনি জেলা আওয়ামী  লীগের কার্যকরী সদস্য হিসেবে দায়িত্বরত আছেন  । তার সহধর্মিণী ও  ডাঃ শাহরিয়ার ফেরদৌস হিমেল এর মা মোছাঃ সুলতানা শিরিন বিরামপুর উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে দীর্ঘ ১৫ বছর সাফল্যের সাথে দায়িত্ব পালন করার পর বর্তমানে  বিরামপুর উপজেলা মহিলা আওয়ামলীগের সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।  তার বড় মামা ও  শাফিয়ীল ইসলাম শিফাইন এর বাবা অ্যাডভোকেট  দেলোয়ার হোসেন দিনাজপুর জেলা যুবলীগের দ্বিতীয় বারের মতো সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করছেন। এর পূর্বেও তিনি দিনাজপুর জেলা যুবলীগের আহব্বায়ক ছিলেন। ছাত্র জীবনে তিনি দিনাজপুর জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন । শিফাইনের মেজ চাচা এবং একই সাথে  হিমেলের মেজ  মামা  মোঃ মিজানুর রহমান   বিরামপুর পৌর শ্রমিক লীগের সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করছেন এবং তার সহধর্মিণী মোছাঃ জান্নাতুল ফেরদৌস বিরামপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন। শিক্ষা জীবনে তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় তাপসী রাবেয়া হল ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করেন।   হিমেলের  ছোট মামা এবং শিফাইনের ছোট চাচা    মোঃ মাহবুবুল আলম  বকুল বর্তমানে বিরামপুর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ  সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করছেন এবং তার সহধর্মিণী মোছাঃ তাজনাহার বেগম বিরামপুর উপজেলা যুবমহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করছেন।

রুয়েট ক্যাম্পাসকে ছাত্রদল ও ছাত্র শিবির মুক্ত করতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন প্রকৌশলী শাফিয়ীল ইসলাম শিফাইন ।

এদিকে সদা মিষ্টভাষী ডাঃ শাহরিয়ার ফেরদৌস হিমেল নিবেদিতপ্রাণ ও কর্মী বান্ধব ছাত্রনেতা  হিসেবেই সারাদেশের ছাত্রলীগ কর্মীদের কাছে পরিচিত । বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার বিমুখ এই দুই ছাত্রনেতাকে নতুন কমিটিতে ভাল অবস্থানে দেখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন উত্তরবঙ্গের ছাত্রলীগ কর্মীরা ।

Share

Comments

comments

Close