আজ: ২৩ অক্টোবর, ২০১৯ ইং, বুধবার, ৭ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৫ সফর, ১৪৪১ হিজরী, দুপুর ১:১৬
সর্বশেষ সংবাদ
রাজনীতি স্বেচ্ছাসেবক লীগের ঢাকা মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক পদে জনপ্রিয়তার শীর্ষে লায়ন এম এ লতিফ

স্বেচ্ছাসেবক লীগের ঢাকা মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক পদে জনপ্রিয়তার শীর্ষে লায়ন এম এ লতিফ


পোস্ট করেছেন: নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ১০/০৯/২০১৯ , ১১:৪১ অপরাহ্ণ | বিভাগ: রাজনীতি


Spread the love

আওয়ামী লীগের চার সংগঠনের সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। চারটি সংগঠনের মধ্যে রয়েছে তিনটি সহযোগী সংগঠন ও একটি ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন। বুধবার আওয়ামী লীগের উপদপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

বিপ্লব বড়ুয়া সাংবাদিকদের বলেন, আগামী ২ নভেম্বর কৃষক লীগ, ৯ নভেম্বর শ্রমিক লীগ, ১৬ নভেম্বর স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও ২৩ নভেম্বর যুবলীগের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সম্মেলনের দিনই ঢাকা মহানগরের দুই কমিটি ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে বলে জানা গেছে । স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক পংকজ দেবনাথ বলেন, ‘ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের সম্মেলন নিয়েও আলোচনা হয়েছে। এবার কেন্দ্রের সম্মেলনের সাথে সাথে মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগও নতুন কমিটি পাবে বলে আশা করছি।’

স্বেচ্ছাসেবক লীগের ঢাকা মহানগরের দুটি কমিটিতে গুরুত্বপূর্ণ পদ-পদবি পাওয়ার আশায় তৎপরতা শুরু করেছেন ডজন খানেক নেতা।
আনুষ্ঠানিকভাবে কেউ স্বীকার না করলেও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পেতে মাঠে নেমেছেন অনেকেই। মহানগরের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ফরিদুর রহমান খান ইরানের পাশাপাশি সভাপতি পদে আলোচনায় রয়েছেন নব্বই দশকের ছাত্রনেতা ইসহাক মিয়া ।
মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আলোচনায় রয়েছেন মোহাম্মাদপুর থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি লায়ন এমএ লতিফ । তিনি সাবেক ৪২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সদস্য ছিলেন এবং ২০০৪ ইং থেকে মোহাম্মাদপুর-আদাবর ও শেরেবাংলা নগর থানার আহ্বায়ক হিসেবে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন । সংগঠনের সাধারণ কর্মীদের সাথে কথা হলে তারা জানান , লায়ন এমএ লতিফ বঙ্গবন্ধুর আদর্শের একজন কর্মী হিসেবে কখনো অর্থের লোভে কোন প্রকার অনৈতিক বা অন্যায় কাজে নিজেকে বিলিয়ে দেননি। অতি সাধারন জীবন যাপন করেন তিনি। বিগত দিনে বিএনপি জামাত বিরোধী আন্দোলন সংগ্রামে সাহসী ও অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছিলেন এই কর্মী বান্ধব নেতা । সাধারণ মানুষের কাছেও প্রবলভাবে জনপ্রিয় তিনি ।

এদিকে এমএ লতিফ ছাড়াও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মহানগর উত্তরে আলোচনায় রয়েছেন মহানগরের সাংগঠনিক সম্পাদক কে এম মনোয়ার হোসেন বিপুল ও ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এস এম রবিউল ইসলাম সোহেল।

তাদের কেউ সরাসরি তদবিরের কথা অস্বীকার করলেও ফেসবুকে তাদের অনুসারীদের পক্ষ থেকে কৌশলী প্রচার চালানো হচ্ছে। ‘অমুক ভাইকে অমুক পদে দেখতে চাই’ বলে আলোচনায় থাকা প্রায় সবাই ফেসবুকে তৎপরতার পাশাপাশি কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন বলে জানা গেছে। এ ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন বলে জানিয়েছেন আলোচনায় থাকা প্রায় সব নেতাই। ফলে কৌশলী প্রচার চালালেও তাদের কেউ প্রকাশ্যে কিছু বলছেন না।

তবে সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ হওয়ার নেতাকর্মীদের মধ্যে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে এসেছে। ঝিমিয়ে পড়া নেতা কর্মীদের মাঝে চাঙ্গা ভাব বিরাজ করছে।

Share

Comments

comments

Close