আজ: ৫ এপ্রিল, ২০২০ ইং, রবিবার, ২২ চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৩ শাবান, ১৪৪১ হিজরী, সকাল ৯:৪৬
সর্বশেষ সংবাদ
জাতীয়, প্রশাসন, বাংলাদেশ সুদান মিশনে সেরা ইউনিট বাংলাদেশ পুলিশ

সুদান মিশনে সেরা ইউনিট বাংলাদেশ পুলিশ


পোস্ট করেছেন: desk news | প্রকাশিত হয়েছে: ১১/২৩/২০১৯ , ৪:২১ অপরাহ্ণ | বিভাগ: জাতীয়,প্রশাসন,বাংলাদেশ



 

আফ্রিকান ইউনিয়ন ইউনাইটেড নেশনস হাইব্রিড মিশন ইন দারফুর (ইউএনএএমআইডি) মিশন প্রধান মি. জেরেমিয়া মামাবোলো বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিট (এফপিইউ) রোটেশন-১১ কে শ্রেষ্ঠ পুলিশ ইউনিটের স্বীকৃতি প্রদান করেন।

মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) সেক্টর সাউথ হেডকোয়ার্টার্স, নিয়ালা সুপার ক্যাম্প এর নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ও নিয়ালা দারফুর এলাকার স্থানীয় জনগণের ক্যাপাসিটি বিল্ডিং এবং গর্ভনমেন্ট অব সুদান (জিওএস) পুলিশের ক্যাপাসিটি বিল্ডিং এ অবদান রাখার জন্য এবং নিয়ালা ক্যাম্প হস্তান্তর অনুষ্ঠানে নিরাপত্তা প্রদান করায় বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিটকে এ স্বীকৃতি প্রদান করা হয়।

বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিটের পক্ষে কন্টিনজেন্ট কমান্ডার মোহাম্মদ আব্দুল হালিম এ স্বীকৃতি সনদ গ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে ইউএনএএমআইডি পুলিশ কমিশনার ড. সুলতান তিমুরী, মিশন সাপোর্ট ডিভিশনের প্রধান প্রেম সিং, নিয়ালা প্রদেশের গর্ভণর মেজর জেনারেল আব্দুল হাসিম, নিয়ালা পুলিশের কমিশনার নিয়াজী সালেহ আহমেদ বাদাওয়িসহ ইউএনএএমআইডি এর উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিট রোটেশন-১১, গত মে মাসের ২৫ তারিখ নিয়ালা সুপার ক্যাম্পে তাদের কার্যক্রম শুরু করে। বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিট নিয়ালা সুপার ক্যাম্পের নিরাপত্তা প্রদানের পাশাপাশি স্থানীয় কমিউনিটির দক্ষতা উন্নয়নের লক্ষ্যে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করে। যেমন স্থানীয় মেয়েদের সেলাই প্রশিক্ষণ, মিষ্টি তৈরি (রসগোল্লা) প্রশিক্ষণ প্রদান করেন। এছাড়াও ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ছবি সম্বলিত বিভিন্ন শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করেন। বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিটের নারী সদস্যরা নিয়ালা পুলিশের নারী সদস্যদের ক্যাপাসিটি বৃদ্ধির জন্য ১৪ দিন মেয়াদী ক্রাউড কন্ট্রোল ম্যানেজমেন্ট ট্রেনিং প্রদান করেন।

দারফুরে ২০০৫ সালে জাতিগত দাঙ্গা (আরব-অনারব) ছড়িয়ে পড়ে। ২০০৬ সালে দারফুর পিস চুক্তির আওতায় জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী বাহিনী কাজ শুরু করে। জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী বাহিনী মোতায়েনের অংশ হিসেবে বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিট ২০০৮ সাল থেকে দারফুরে কর্মরত রয়েছে। ১৯ নভেম্বর, ২০১৯ নিয়ালা সুপার ক্যাম্প গর্ভণমেন্ট অব সুদানের নিকট হস্তান্তর হওয়ার পর বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিট এল-ফেশার সেক্টর নর্থ এ শিফট করে। জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী বাহিনীর কার্যক্রমের ফলে সুদানের দারফুরে জাতিগত দাঙ্গা প্রশমিত হওয়ায় শান্তি ফিরে এসেছে। যার ফলশ্রুতিতে সেক্টর সাউথ হেডকোয়ার্টার্স, নিয়ালা সুপার ক্যাম্প সুদান সরকারের নিকট হস্তান্তর করা হয়। ইতোপূর্বে সেক্টর ইস্ট আলদাইন এবং সেক্টর ওয়েস্ট আল জেনিনা সুদান সরকারের নিকট হস্তান্তর করা হয়। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ৪০৪৫ প্রস্তাবনা অনুযায়ী আগামী ২০২০ সালের ৩১ অক্টোবর সেক্টর নর্থ এল-ফেশার সুদান সরকারের নিকট হস্তান্তর করা হবে।

নিয়ালা সুপার ক্যাম্পে বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিট ছাড়াও পাকিস্তান, তাঞ্জানিয়া, বুরুকিনা ফাসো ফর্মড পুলিশ ইউনিট কর্মরত ছিল। শুধুমাত্র বাংলাদেশ ফর্মড পুলিশ ইউনিট শ্রেষ্ঠ পুলিশ ইউনিট হিসেবে স্বীকৃতি অর্জন করে।

সূত্র- ডিএমপি নিউজ

Share

Comments

comments

Close