আজ: ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং, বুধবার, ৬ ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৬ জমাদিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী, সকাল ১০:২৩
সর্বশেষ সংবাদ
প্রধান সংবাদ, রাজনীতি অভিযোগ প্রমাণ হলে প্রার্থিতা বাতিল হতে পারে তাবিথ আউয়ালের

অভিযোগ প্রমাণ হলে প্রার্থিতা বাতিল হতে পারে তাবিথ আউয়ালের


পোস্ট করেছেন: নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ০১/২০/২০২০ , ১২:৩৬ অপরাহ্ণ | বিভাগ: প্রধান সংবাদ,রাজনীতি



ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের বিরুদ্ধে নির্বাচনী হলফনামায় তথ্য গোপন করার অভিযোগ উঠেছে। ভারত ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম নর্থ ইস্ট নাউয়ের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়, সিঙ্গাপুরের এনএফএম এনার্জি কোম্পানির প্রায় সাড়ে তিনশ শেয়ারের মালিক তাবিথ। কিন্তু নির্বাচনী হলফনামায় তিনি যে সম্পদের হিসেব দিয়েছেন সেখানে এই শেয়ারের কথা উল্লেখ করেননি তিনি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ট্রান্সফারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ‘ নির্বাচনে তথ্য গোপন করা নির্বাচনী আচরণ বিধির লঙ্ঘন। নির্বাচন কমিশনকে এই ব্যাপারগুলো খতিয়ে দেখা উচিত। নির্বাচন কমিশন ঘটনার সত্যতা পেলে তার প্রার্থিতা বাতিল করতে পারে কিংবা নির্বাচনের পরও যদি তার এই ঘটনার প্রমাণ হয় তখনও তিনি পদ হারাতে পারেন। সেই সঙ্গে দুদকও বিষয়টি খতিয়ে দেখতে পারে।’

আর তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ও মানবাধিকার কর্মী সুলতানা কামাল বলেন, ‘বর্তমান নির্বাচন কমিশন সর্বোচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন। কোন প্রার্থী হলফনামায় তথ্য গোপন করলে কমিশন চাইলে তার প্রার্থিতা বাতিলসহ যেকোনো ধরনের পদক্ষেপ নিতে পারে।’ তিনি আরও বলেন, প্রার্থীদের হলফনামা যাচাইয়ে কমিশনকে আরও সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত।

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল তার হলফনামায় তথ্য গোপন করার অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে রিটার্নিং অফিসার আবুল কাশেম বলেন, প্রার্থীদের হলফনামা সর্বোচ্চ সতর্কতার সাথেই যাচাই-বাছাই করা হয়। এরপরও যদি কারও নামে তথ্য গোপনের অভিযোগ পাওয়া যায় সেক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশনের কিছু করার নেই। কেউ চাইলে তা উচ্চ আদালতে রিট করতে পারেন।

সিঙ্গাপুরের প্রতিষ্ঠানটির তথ্য থেকে জানা যায়, যৌথ মালিকানায় থাকা এনএফএম এনার্জির ১০০০টি শেয়ারের মধ্যে ৩৪০টি শেয়ারের মালিক তাবিথ আউয়াল। এছাড়া বাকি ৬৬০টি শেয়ার রয়েছে তার দুই ভাই তাসফির আউয়াল ও তাজওয়ার আউয়ালের। কিন্তু তাবিথ আউয়াল নির্বাচনী হলফনামায় তার মালিকানায় ও নিয়ন্ত্রণাধীন যে ৩৭টি প্রতিষ্ঠানের নাম উল্লেখ করেছেন সেখানে বিপিসিএল ও এনএফএম এনার্জির নাম নেই।

সিঙ্গাপুর ভিত্তিক এনএফএম এনার্জি কোম্পানিটি বাংলাদেশ পেট্রোকেমিক্যাল কোম্পানি লিমিটেড(বিপিসিএল) এর একটি বড় অংশের মালিক। এদিকে, পানামার ব্যবসা নিবন্ধক সংস্থার নথি এবং প্যারাডাইস পেপার্সে মাল্টিমোড ইন্টারন্যাশনাল নামের আরেকটি কোম্পানির সন্ধান পাওয়া গেছে। যে কোম্পানিটি ট্রেজারার ও ডিরেক্টর হিসেবে আছেন তাবিথ আউয়াল।

Share

Comments

comments

Close